বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ০৪:৪১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কালিগঞ্জে বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে মাদ্রাসা ছাত্রের করুন মৃ*ত্যু সাতক্ষীরায় আন্তর্জাতিক প্রাণবৈচিত্র্য দিবস উপলক্ষে মানববন্ধন উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত॥ তালায় চেয়ারম্যান ঘোষ সনৎ, ভাইস চেয়ারম্যান ইখতিয়ার ও পুতুল হুয়াওয়ে আইসিটি কম্পিটিশনের গ্লোবাল রাউন্ডে অংশ নিতে চীনে বাংলাদেশ দল দেবহাটা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলফা, ভাইস চেয়ারম্যান সবুজ ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান স্পর্শ নির্বাচিত তালার ঘোষ সনৎ, আশাশুনির মোস্তাকিম ও দেবহাটার আলফা উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত আমি নির্বাচিত হলে সদর উপজেলাবাসী নিরাপদে থাকবে-আনারস প্রতীকের প্রার্থী সুশান্ত কুমার মন্ডল  আশাশুনি, তালা ও দেবহাটা উপজেলা পরিষদের নির্বাচন উপলক্ষে ডিসি ও এসপি’র বিভিন্ন ভোটকেন্দ্র পরিদর্শন মোটর সাইকেল প্রতিকে বৈকারী ও ঘোনায় চেয়ারম্যান প্রার্থী শওকত হোসেনের নির্বাচনী জনসভা ইছামতি নদীতে ভারতীয় নাগরিকের মরদেহ উদ্ধার!

দেবহাটা উপজেলা চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচনে আলোচনার শীর্ষে মনি

নিজস্ব প্রতিবেদক:
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ১১১৫ বার পড়া হয়েছে

আসন্ন উপ নির্বাচন ঘিরে বর্তমানে উপজেলাব্যাপী শুরু হয়েছে তুমুল আলোচনা। ইতোমধ্যেই উপজেলা চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দীতার ঘোষনা দিয়ে প্রত্যক্ষ পরোক্ষভাবে দলীয় নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষের সাথে মতবিনিময় ও প্রচার প্রচারনা চালিয়ে যাচ্ছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের শীর্ষ পর্যায়ের একাধিক নেতারা। শুধু প্রচার প্রচারনা কিংবা মতবিনিময় নয়, উপজেলা চেয়ারম্যান পদের প্রার্থী হিসেবে দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার জন্যও নিয়মিত কেন্দ্রীয় নেতাদের সাথে যোগাযোগ অব্যাহত রেখেছেন এসকল মনোনয়ন প্রত্যাশীরা। 

গত ৭ আগষ্ট করোনা ভাইরাস সংক্রমনে সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল গণি মৃত্যুবরণ করায় শুন্য হয় গুরুত্বপূর্ন এ পদটি। ফলে ওই পদটির আসন্ন উপ নির্বাচন ঘিরে বর্তমানে উপজেলাব্যাপী শুরু হয়েছে আলোচনা।
তবে মনোনয়ন প্রত্যাশী প্রার্থীদের মধ্যে তৃনমুল নেতাকর্মী ও কাউন্সিলরদের আস্থা অর্জনের মাধ্যমে উপজেলাব্যাপী আলোচনায় রয়েছেন টানা তিনবারের নির্বাচিত উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনি।
২০০৩, ২০১২ ও সর্বশেষ ২০১৯ সালে অনুষ্ঠিত উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে পরপর তিন মেয়াদে কাউন্সিলরদের প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত হয়ে সাধারন সম্পাদক হিসেবে টানা ১৭ বছর উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রতিনিধিত্ব করছেন মনিরুজ্জামান মনি। সাতক্ষীরা জেলাব্যাপী রাজনৈতিক মহলে একজন সৎ, দক্ষ ও তুখোড় রাজনীতিবীদ হিসেবেও বেশ সুখ্যাতি রয়েছে তার।
১৯৬৮ সালের ১১ সেপ্টেম্বর দেবহাটার মাঝ পারুলিয়া গ্রামের এক মধ্যবিত্ত ঘরে জন্মগ্রহন করেন মনিরুজ্জামান মনি। ছেলেবেলা থেকেই নম্র, ভদ্র, বিনয়ী ও খুব সাহসী প্রকৃতির ছিলেন তিনি। লেখা পড়াতেও ছিলেন বেশ ভালো। নলতা হাইস্কুল থেকে ১৯৮৪ সালে প্রথম বিভাগে এসএসসি, সাতক্ষীরা সরকারী কলেজ থেকে ১৯৮৬ সালে দ্বিতীয় বিভাগে এইচএসসি পাশ করেন তিনি। সাতক্ষীরা কলেজে পড়াকালীন সময়ে মনিরুজ্জামান মনি বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাথে ওতোপ্রতভাবে জড়িয়ে পড়েন। অন্তুভূক্ত হন জেলা ছাত্রলীগের কমিটিতে। পরে ঢাকা কলেজের ছাত্রলীগের মিলনায়তন সম্পাদক পদে নির্বাচিত হন। তিনি ১৯৯০ সালে প্রানীবিদ্যায় অনার্স ডিগ্রী লাভ করেন।
ঢাকা কলেজে অধ্যায়নরত অবস্থায় স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনে রাজপথে বিশেষ ভুমিকা রাখেন তিনি। সাথে সাথে নিজ উপজেলা দেবহাটাতে ছাত্রলীগ গঠনেও তিনি গুরুত্বপূর্ন অবদান রাখেন। সেসময়েই দেবহাটা উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়কের দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি পুর্নাঙ্গ উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি গঠন সহ উপজেলাতেও স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনে নেতৃত্ব দেন মনি।
১৯৮৭ সালের ১০ নভেম্বর যেদিন স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনে যুবলীগকর্মী নুর হোসেন গুলিবিদ্ধ হন সেদিনও রাজপথে ছিলেন তিনি। ঢাকা কলেজ থেকে পড়াশুনা শেষে ১৯৯৫ সালে এলাকায় ফিরে এসে মনিরুজ্জামান মনি দেবহাটা উপজেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদকের দায়িত্ব গ্রহন করেন। ২০০২ সাল পর্যন্ত টানা ৭ বছর দায়িত্ব পালনকালে তিনি যুবলীগের পাশাপাশি দেবহাটাতে আওয়ামী লীগকেও সুসংগঠিত রেখেছিলেন। ২০০৩ সালের ২৩ ডিসেম্বর তৎকালীন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল মান্নানের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে কাউন্সিলরদের প্রত্যক্ষ ভোটের মাধ্যমে অন্যান্য প্রার্থীদের থেকে দ্বিগুন ভোটের ব্যবধানে প্রথমবারের মতো উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হন মনি। ওই সম্মেলনে ৪ জন সিনিয়র হেভিওয়াট প্রার্থীকে পরাজিত করে অপেক্ষাকৃত তরুন মনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ায় কেন্দ্রীয় নেতারাও বিষ্মিত হয়েছিলেন।
২০০৬ সালে নিরেপেক্ষ তত্বাবধায়ক সরকারের দাবীতে আন্দোলন, ময়নুদ্দীন-ফখরুদ্দীনের সেনা সমর্থিত তথাকথিত তত্বাবধায়ক সরকারের আমলে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে এবং নেত্রীর মুক্তির দাবীতে দলীয় কেন্দ্রীয় ঘোষিত নানা আন্দোলন সংগ্রামে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন মনি।
যার ফলশ্রুতিতে জামায়ত-বিএনপি কর্তৃক দুটি মিথ্যা মামলাতে আসামী করা হয় তাকে। যদিও পরে তদন্ত সাপেক্ষে মনিরুজ্জামান মনি মামলা থেকে অব্যাহতি পান।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হওয়ার পর দেবহাটার তৃনমুল পর্যায় পর্যন্ত দলকে সাংগঠনিকভাবে সুসংগঠিত করেন তিনি। ২০১২ সালের ১২ মে আওয়ামী লীগের সভানেত্রী ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে সাতক্ষীরা জেলা ও উপজেলা নেতৃবৃন্দের মতবিনিময়ে মাত্র ৭-৮ মিনিটের বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী নজর কাড়েন মনি। দীর্ঘ ৯ বছর দায়িত্ব পালনের পর ২০১২ সালের ২৯ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী মাহবুব উল আলম হানিফ সহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দদের উপস্থিতিতে আবারো কাউন্সিলরদের প্রত্যক্ষ ভোটে সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হন মনিরুজ্জামান মনি।
২০১৩-১৪ সালে জামায়ত-বিএনপির সহিংসতাকালীন সময়েও রাজপথে থেকে নেতাকর্মীদের অনুপ্রেরণা যোগানোর পাশাপাশি জামায়ত-বিএনপিকে প্রতিরোধের সর্বত্মক প্রচেষ্টা করেন তিনি।
তার দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনার বিপরীতে কিংবা দলের গঠনতন্ত্রের পরিপন্থী কোন কর্মকান্ডে অংশগ্রহনের প্রমান মেলেনি তথ্যানুসন্ধানে। এমনকি ২০১৯ সালে অনুষ্ঠিত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হিসেবে কাউন্সিলরদের ব্যাপক ভোট পেয়ে প্রথমস্থানে ছিলেন তিনি। কিন্তু দলীয় মনোনয়ন না পাওয়ায় দলের স্বার্থে তিনি বিদ্রোহী প্রার্থীও হননি।
উপ-নির্বাচন প্রসঙ্গে দেবহাটা উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান মিন্নুর, ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সুমন, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক লোকমান কবীরসহ একাধিক নেতারা বলেন, মনিরুজ্জামান মনি বিগত প্রায় ১৭ বছর ধরে দেবহাটা উপজেলা আওয়ামী লীগকে সুসংগঠিত করে রেখেছেন। তিনি একজন সৎ ও স্বচ্ছ ইমেজের মানুষ। দেবহাটার রাজনীতিতে মনির কোন বিকল্প নেই। তিনি আওয়ামী লীগের প্রকৃত একজন কান্ডারী। উপজেলা চেয়ারম্যান পদে মনি দলীয় মনোনয়ন পেলে রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গি থেকে দল যেমন আরোও সুসংগঠিত হবে, তেমনি দেবহাটা উপ-নির্বাচন প্রসঙ্গে দেবহাটা উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান মিন্নুর, ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সুমন, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক লোকমান কবীরসহ একাধিক নেতারা বলেন, মনিরুজ্জামান মনি বিগত প্রায় ১৭ বছর ধরে দেবহাটা উপজেলা আওয়ামী লীগকে সুসংগঠিত করে রেখেছেন। তিনি একজন সৎ ও স্বচ্ছ ইমেজের মানুষ। দেবহাটার রাজনীতিতে মনির কোন বিকল্প নেই। তিনি আওয়ামী লীগের প্রকৃত একজন কান্ডারী। উপজেলা চেয়ারম্যান পদে মনি দলীয় মনোনয়ন পেলে রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গি থেকে দল যেমন আরোও সুসংগঠিত হবে, তেমনি দেবহাটা একটি উন্নত ও মডেল উপজেলায় রুপান্তরিত হবে।

সংবাদ টি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আজকের নামাজের সময়সুচী

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৩:৫২ পূর্বাহ্ণ
  • ১১:৫৮ পূর্বাহ্ণ
  • ১৬:৩৩ অপরাহ্ণ
  • ১৮:৪০ অপরাহ্ণ
  • ২০:০৩ অপরাহ্ণ
  • ৫:১৩ পূর্বাহ্ণ
©2020 All rights reserved
Design by: SHAMIR IT
themesba-lates1749691102
error: Content is protected !!